অ্যামাজনের উত্থান ও জেফ বেজোসের  সিদ্ধান্ত গ্রহনের নিপুণতা

14

1204

অ্যামাজনের উত্থান ও জেফ বেজোসের সিদ্ধান্ত গ্রহনের নিপুণতা

  • 0
  • #অন্যান্য #রকমারি ভাবনা
  • Author: Rokomari Editor
  • Share

জেফ বেজোস, যার সম্পদের পরিমান ৭৬ বিলিয়ন অর্থাৎ ৭ হাজার কোটি মার্কিন ডলার। আর বাংলাদেশী টাকায় সেই অঙ্ক টা হিসাব করতে হলে অবশ্যই সবাইকে ক্যালকুলেটর নিয়ে বসতে হবে। তবে যাই হোক, আজকের আলোচ্য বিষয় জেফ বেজোসের সম্পদের হিসাব করা নয় বরং বেজোস এবং তার কোম্পানি অ্যামাজন ডট কম এর ব্যাবচ্ছেদ করা। আর এই ব্যাবচ্ছেদের কাজটা করেছেন সাংবাদিক ব্র্যাড স্টোন। 

যেহেতু গত আড়াই দশকে অ্যামাজন ডট কম আমাদের ভোক্তা স্বভাবে আমূল পরিবর্তন এনেছে। তবে এই আড়াই দশকের বেশীরভাগ সময়েই অ্যামাজন ডট কম এর উপর তীক্ষ্ণ দৃষ্টি রাখছিলেন সাংবাদিক ব্র্যাড স্টোন। স্টোন হলেন New York Times এর বেস্ট সেলিং বই The Everything Store: Jeff Bezos and the Age of Amazon এর লেখক। এই খ্যাতিমান সাংবাদিকের সাথে জেফ বেজোস এর সিদ্ধান্ত নেওয়ার ব্যাপারে যে দক্ষতা এসেছে তা নিয়ে কথা বলেছেন ড্যানিয়েল ম্যাকগিন, যা নিয়ে আজকের এই লেখা।

জেফ বেজোস যেকোনো সিদ্ধান্ত নেয়ার কোন জিনিসগুলোতে বেশী গুরুত্ত দেন?

দুটি জিনিস আমার বেশী নজর কেড়েছে। এর মধ্যে প্রথমটি অর্থাৎ, “তিনি সর্বদা সবচেয়ে উৎকৃষ্ট তথ্য সংগ্রহের চেষ্টা করেন”, তার ডানহাত সহকারী রিক ডেলজেল প্রথম আবিষ্কার করেন। রিকের মতে, বেশীরভাগ মানুষ কোনো তথ্য জানলেই তাকে সত্য ভেবে বসে, কিন্তু জেফ এর ব্যতিক্রম। তিনি সবসময় যেকোনো তথ্যের গোড়ায় গিয়ে সত্য উদঘাটন করতে ভালোবাসেন। আর দ্বিতীয় ব্যাপারটি হলো, তিনি যেকোন কাজ প্রচলিত নিয়মের বাইরেও আরও সহজ ও আন্তরিক উপায়ে সম্পন্ন করার চেষ্টা করেন।

উদাহরণস্বরূপ, অন্যসব টেক কোম্পানি তাদের প্রোডাক্ট বাজারে আনার সময় অনেক বড় রকমের সংবাদ সম্মেলন করে থাকে কিন্তু  অ্যামাজন ডট কম যখন Kindle Fire tablets বাজারে আনে তখন বেজোস প্রথাগত নিয়মের বাইরে গিয়ে সাংবাদিকদের কয়েকটি দলে ভাগ করে আলাদা আলাদাভাবে সবাইকে Kindle Fire tablets এর ডেমোগুলো দেখান। এভাবে যে সুবিধাটি তিনি পান তা হলো সবাই Kindle Fire tablets সম্পর্কে অনেক বৈচিত্র্যমূলক প্রশ্ন করতে সক্ষম হয় যার ফলশ্রুতিতে ক্রেতারা এটির গুনগত মান সম্পর্কে অনেক বেশী অবগত হতে পারে এবং Kindle Fire tablets এর বিক্রি অনেক বৃদ্ধি পায়।

রকমারি ডট কম এ দেখুন বিশ্বসেরা উদ্যোগ এবং উদ্যোক্তাদের নিয়ে লিখিত নির্বাচিত সকল বই

আপনার বইয়ের একপর্যায়ে আপনি লিখেছেন যে বেজোস তার কর্মচারীদেরকে মাঝে মাঝেই অবজ্ঞা, ভৎসনা করেন এবং তাদের অনেক উপদেশ ও সিদ্ধান্ত বাতিল করে দেন সেই বিষয়ে তার ঐসকল কর্মচারীদের চেয়ে কম জানাশোনা থাকলেও। উনার এমন ব্যবহারের কারণ কি বলে আপনি মনে করেন?

এটার অন্যতম একটি কারণ হলো তিনি তার আশেপাশের সব জিনিসকেই অত্যন্ত নিখুতভাবে দেখতে চান। তিনি সর্বদাই তার কর্মীদেরকে আরো ভালো করার জন্য চাপ দিতে থাকেন। তিনি চান সকলেই যেনো তার মত করে অনেক বড় স্বপ্ন দেখতে পারে, তার মত কর্মঠ হতে পারে।  তবে সময়ের সাথে সাথে তিনি তার এই স্বভাব থেকে অনেকটাই বেরিয়ে আস্তে পেরেছেন।

আপনি আপনার বইয়ে একজন শিক্ষা গবেষকের কথা উল্লেখ করেছেন যিনি বেজোসের সাথে সময় কাটিয়েছেন যখন তিনি মাত্র ১২ বছর বয়সে gifted-and-talented স্কুলে পড়াশোনা করছিলেন। আপনি কি মনে করেন যে gifted-and-talented স্কুলে পড়াশোনা করার কারণে বেজোস আর দশজনের থেকে চৌকস হিসেবে গড়ে উঠেছেন?

আসলে তিনি যে সবসময়ই সঠিক তা কিন্তু নয়। তিনি অনেক সময় অনেক বেশী ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করতে গিয়ে ভুল সিদ্ধান্ত নিয়ে বসেন। ১৯৯০ এর সময়ে তিনি ইন্টারনেট এর গতিপ্রকৃতি সম্পর্কে প্রায় নিশ্চিত হয়ে সময়ের অনেক আগেই একটি সিদ্ধান্ত নেন যা অ্যামাজন ডট কম এর জন্য লাভের চেয়ে বেশী ক্ষতি বয়ে আনে। তবে তিনি তার নিজের উপর অনেক আত্মবিশ্বাসী যা তাকে অনেক ঝুকি নিতে সাহস যোগায়।

আপনার কথা অনুসারে বেজোস তার নিজের মতো স্বভাবের মানুষের দ্বারাই পরিবেষ্টিত থাকেন। কিন্তু যখন তার কোনো বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার প্রয়োজন হয়, তখনও কি তার কর্মচারীরা তার সাথে সহমত পোষণ করেন নাকি গঠনমূলক সমালোচনাও করেন?

যদিও তার কর্মচারীদের সবাই তার দ্বারা প্রভাবিত কিন্তু আমার মনে হয়না সবক্ষেত্রেই তারা সহমত পোষণ করেন। কারণ অ্যামাজন ডট কম এত বড় একটি প্রতিষ্ঠান যে এখানে একজন ব্যক্তির পক্ষে সব ছোট ছোট ব্যাপার সামলানো সম্ভব না। অ্যামাজন ডট কম এর অনেক কর্মকর্তাই তাদের নিজস্ব চিন্তাধারা নিজ নিজ ডিপার্টমেন্টে ব্যবহার করেন।

প্রায়ই দেখা যায় যে বেজোস ওয়াল স্ট্রিটের কথা অগ্রাহ্য করে অনেক সিদ্ধান্ত নেন। এটা তিনি কিভাবে করেন যখন বেশীরভাগ সিইওই তা করতে পারে না?

সত্যি বলতে কি পরিস্থিতি সবসময় একই রকম ছিলোনা। এটি তিনি অর্জন করেছেন। তিনি বারবার এটা প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছেন যে তার নেওয়া সিদ্ধান্তগুলো অনেক ফলপ্রসূ। আর বারবার যখন তিনি তার ঝুকি নেওয়ার যে ক্ষমতাকে প্রমাণ করেছেন, তার শেয়ারহোল্ডাররাও তার অপর এখন চোখ বন্ধ করে ভরসা রাখতে পারেন।

দেখুনঃ বিলগেটসের চোখে ২০১৮ সালের সেরা বই

অ্যামাজন ডট কম তাদের যেকোনো মিটিং শুরু করার সময় কোনো PowerPoint Presentation এর পরিবর্তে ৬ পৃষ্ঠার একটি খসড়া দেন যাতে ঐ মিটিংয়ে আলোচনার বিষয়বস্তু দেওয়া থাকে।আবার তাদের একটি আলাদা নিয়ম আছে কউকে পদোন্নতি দেওয়ার জন্য। আপনার কি মনে হয় এই জিনিসগুলো কোনো কোম্পানির উন্নতির জন্য আবশ্যক?

আমার মনে হয়না যে এটি তাদের সফলতার প্রধান কারণ। কারণ অ্যামাজন ডট কম সম্পূর্ণভাবেই বেজোস এর Brain-Child. কোম্পানির গঠনপ্রণালী এমনভাবে করা যে এটাকে দেখে মনে হয় কোনো Grand-Master দাবাড়ু তার দাবার ছক এমনভাবে সাজিয়েছেন যে প্রতিপক্ষ যে চালই দিক না কেন জয় নিশ্চিত। কারণ শুধুমাত্র PowerPoint Presentation এর বদলে একটি খসড়া পড়েই একটি কোম্পানিকে সাফল্যের চূড়ায় নেওয়া যায়না।

দেখুনঃ 100 Must-Read Books

আরও পড়ুনঃ

আপনার চিন্তার জগত পালটে দিতে পারে যে ৯ টি বই

যে ১০ জনের জীবনী আপনার জীবন পাল্টে দিতে পারে !

Write a Comment

Related Stories