গল্পস্বপ্নে রকমারি

0

36

গল্পস্বপ্নে রকমারি

  • 0
  • #খোশগল্প
  • Author: Zahid Hasan
  • Share

একটা গল্প বলি। গল্পটা মূলত দুজনের, কিন্তু গল্পটা আবার সবার। সুখন আর সোহাগের গল্প। দুজন ব্যক্তি, দুটি ইচ্ছা আর একটা সাফল্যের গল্প।

সুখনের গল্প-

সুখন সাদামাটা একজন ছেলে। বর্তমানে সে থাকে ট্রেন্টন, নিউ জার্সিতে। ভাগ্যের ঘূর্ণায়মান চক্রের রোষে পড়ে আজ তার অবস্থান এখানে। রবিন্দ্রনাথ,জীবনানন্দ,বিষ্ণু দে’র মাঝে জীবন খোঁজা সুখন আজ ম্যাকডোনাল্ডসে বার্গার সার্ভে জীবন খোঁজে। অবসর সময়ে হাডসন নদীর তীর ঘেঁষে হেঁটে বেড়ায় সে। মনে মনে আওড়ায়- “সতত, হে নদ তুমি পড় মোর মনে, সতত তোমার কথা ভাবি এ বিরলে”। চোখে হাডসন, কল্পনায় গ্রামের রূপসা নদী ভাসে তার। জীবন এর অপর নাম পরিবর্তন। সুখন সে পরিবর্তনকে মেনে নেয়। ভোর সকালে উঠে দাঁত ব্রাশ করে, জব সার্কুলার খোঁজে, পোড়া ব্রেড টোস্ট স্বাদ লাগে খুব তার, বাড়ি থেকে নিয়ে আসা একটিমাত্র বই রবীন্দ্রনাথের ‘গল্পগুচ্ছ’ ৮৭ তম বারের মতো রিভিশন দেয়, পড়াশুনা চালিয়ে যাবে নাকি সে সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগে, শেষমেশ নিজেকে আবিষ্কার করে যখন তখন সে বার্গারের পেটি কাটছে। এভাবেই দিন চলে যায় তার, এভাবেই কেটে যায় রাত। ছাদ থেকে দেখতে পাওয়া ওই দূরের স্ট্যাচু অফ লিবার্টির মতো নিঃসঙ্গ লাগে তারও, হাতে টর্চ আর রবীন্দ্রনাথের গল্পগুচ্ছ নিয়ে। ছোটবেলার কথা বেশী মনে করে না সে, নস্টালজিয়াকে বড় ভয় তার। সেই গ্রাম, সে রূপসা নদী, বড় আপার বইয়ের স্তুপ থেকে প্রতিদিন কোন না কোন বই মেরে দেয়া, তারপর আমবাগানের গাছের নিচে হেলান দিয়ে পড়ে ফেলা তিন গোয়েন্দা, কাকাবাবু, ফেলুদা, প্রথম আলো, মিসির আলি, কথোপকথন, গল্পগুচ্ছ, আরও কতো কি। সে বইগুলো হারিয়ে গেছে, হারিয়ে গেছে শৈশব, এখন আছে কেবল বাস্তবতা। সেই বাস্তবতার সাথে লড়াই করতেই সুখনের দিন চলে যায়। সময় দেয়া হয়না নিজেকে, নিজের আত্মাকে। এই বাস্তব জীবনে তার একমাত্র সঙ্গি হচ্ছে রবিবাবুর গল্পগুচ্ছ। আসার সময় বড় আপা কখন লুকিয়ে ব্যাগে ঢুকিয়ে দিয়েছিল বইটা টেরও পায়নি সে।  এতো বছরের প্রবাস জীবনে অনেক কিছুই হারিয়েছে সে, কিন্তু এই বইটা কখনোই হারাতে দেয়নি। মাঝে মাঝেই নাকের কাছে এনে বইয়ের ঘ্রাণ নেয় সে। মনে হয় বড় আপা মাথায় হাত বুলিয়ে দিচ্ছে। বড় আপার ঘ্রাণ লেগে আছে বইয়ে। বইয়ের চরিত্রগুলোর  মাঝে দেশকে খুঁজে বেড়ায়, দেশের মানুষকে খুঁজে বেড়ায়। এখানেও বাংলা বই পাওয়া যায় খুঁজলে। কিন্তু সেগুলো টানেনা সুখনকে। দেশ থেকে যদি কেউ বই পাঠাতো, দেশ থেকে যদি বই কেনা যেত! বইমেলার বই, শৈশবের বই!

সোহাগের গল্প-

সোহাগও একজন সাদামাটা মানুষ। নিজের সৃষ্টিশীলতা আর অন্যরকম চিন্তাধারা দিয়ে কিছু করার চেষ্টা করছিল দেশের জন্য। তার অন্যরকম ঘরানার কাজগুলো আর চিন্তাগুলোর মাঝেই একদিন তার ও তার অন্যরকম বন্ধুদের মাথায় একটা চিন্তা খেলা করে। এমন হলে কেমন হয় যদি বাংলাদেশ ও বিদেশে বসবাসকারী প্রতিটি বাঙালি ঘরে বসেই তাদের পছন্দের বই কিনতে পারবে! বিশ্বের আধুনিকায়নের সাথে সাথে আমাদেরও যে আধুনিকায়িত হতে হবে সেটি তারা বুঝতে পেরেছিল। বাঙালির মতো একটি বইপ্রেমী জাতির জন্য বই কিভাবে আরও সহজলভ্য করা যায় সে চিন্তা থেকেই এ চিন্তার উৎপত্তি। আর এ চিন্তা থেকেই উৎপত্তি রকমারি ডট কমের। ২০১২ সালের ১৯ শে জানুয়ারি শুরু হয় এই স্বপ্ন। স্বপ্নের লক্ষ্য একটাই- বাংলা ভাষাভাষী প্রতিটি মানুষ রকমারির সাহায্যে দেশ-বিদেশের যে কোন প্রান্তে বসে পছন্দের বই ক্রয় করতে পারবে। সেই ১২’সালের জানুয়ারি থেকে শুরু করে আজ পর্যন্ত, রকমারি হামাগুড়ি দিয়ে এখন হাঁটতে শিখে গেছে। সোহাগ ও তার বন্ধুদের দেখা স্বপ্ন আজ আরও অনেক মানুষের স্বপ্নে রুপ নিয়েছে। সবার স্বপ্নে একটাই বিশ্বাস- বইয়ের আলোয় কেটে যাবে আলেয়ার প্রহেলিকা।

………………………………

সুখন আর সোহাগের গল্পের মাঝে একটা মিল পাওয়া যায়। আর সেটা হল- বই। দুজনেই বই ভালবাসে, একজন বই পড়তে ব্যাকুল, আরেকজন বই পড়াতে। কেমন হয় যদি দুজনের ইচ্ছাকে এক করে দেয়া যায়? সেই একীভূত করার ইচ্ছা নিয়েই আগমন রকমারি ডট কমের। সুখন চাইলেই এখনো ম্যাকডোনাল্ডসে বার্গারের পেটি কাটতে কাটতে অনলাইনে গিয়ে জীবনানন্দের বনলতা সেন অর্ডার করে আসতে পারবে। www.rokomari.com  এই ঠিকানায় গিয়ে নিজের মেইল আইডি দিয়ে একটা একাউন্ট খুলে পছন্দের বই সার্চ করে অথবা সাইট ঘেঁটে বই পছন্দ করে অর্ডার করে দিতে পারবে নিজের ঠিকানায়। টাকা পরিশোধ করার ঝামেলাও কম কেননা নিজের পছন্দমতো পেমেন্ট অপশন সিলেক্ট করতে পারবে সে। ইন্টারন্যাশনাল ট্রাঞ্জাকশনের জন্য পেমেন্ট অপশন আছে রকমারিতে। বইয়ের দাম আর ওয়েট চার্জ একসাথে পরিশোধ করে সুখন চাইলেই বইমেলার বই কিনতে পারবে; কিনতে পারবে শৈশবের হারিয়ে যাওয়া সে বইগুলো; চাইলে বড় আপাকে বই গিফট করে সারপ্রাইজ করে দিতে পারবে; চাইলেই রবিবাবু,জীবনানন্দ,হুমায়ুন আহমেদকে বগলদাবা করে নিয়ে যেতে পারবে বিদেশ-বিভূঁইয়ে।

সুখন একবার কেবল তার ইচ্ছাপূরণ করুক, পছন্দের বই অর্ডার করুক রকমারিতে, রকমারি সব বই পাঠিয়ে দেবে সুখনের ঠিকানায়। তারপর একদিন হাডসন নদীর তীর ঘেঁষে পা দুলিয়ে সুখন বই পড়বে আর আওড়াতে থাকবে- সব পাখি ঘরে আসে-সব নদী-ফুরায় এ জীবনের সব লেনদেন; থাকে শুধু অন্ধকার, মুখোমুখি বসিবার বনলতা সেন।

Write a Comment