কেন লেখা হলো ‘বাবা’ বইটি ?

‘বাবা’

এক অলস দুপুর। টিভি খুলে শুয়ে আছি। টিভিতে মুক্তিযোদ্ধা অভিনেতা রাইসুল ইসলাম আসাদের সাক্ষাৎকার চলছে। আসাদ বললেন মুক্তিযুদ্ধের সময় যাঁর যুদ্ধে যাবার মতো অবস্থা ছিল, কিন্তু যায়নি, তাঁর মতো দুর্ভাগা পৃথিবীতে আর কেউ নেই।

কথাটা আমার মাথায় নিহিলিউস্টিক ডিলিউশনের মতো ঘুরতে লাগল। এরা যদি দুর্ভাগা হয়, তবে সবচেয়ে সৌভাগ্যবান কারাতখনি মনে হলো, আমার মতো যাঁদের জন্ম এই স্বাধীন দেশে, তাঁদের চেয়ে সৌভাগ্যবান আর কে হতে পারে !

যাঁদের আত্মত্যাগের বিনিময়ে এই সৌভাগ্য পেলাম, তাঁদের কাছে আমরা ঋণী। এই ঋণ শোধ করা সম্ভব না। তবে শোধ করার অবিরাম চেষ্টা আমাদের বুকের ভিতর থাকবে, এটাই স্বাভাবিক একজন লেখক হবার স্বপ্ন দেখা মানুষ হিসেবে, আমি এই চেষ্টা করলাম আমার মতো করেই। এই বইটি তেমন একটি ক্ষুদ্র প্রয়াস।

বাবাআমার প্রকাশিত দ্বিতীয় উপন্যাস। দ্বিতীয় উপন্যাসেই মুক্তিযুদ্ধের মতো বিশাল পটভূমি নিয়ে লেখার সাহস হয়নি। দীর্ঘদিন তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করেছি। মনে মনে উপন্যাসের ঘটনা সাজিয়েছি। চরিত্রগুলোকে আমার চোখের সামনে কথা বলতে দেখেছি। কিন্তু লিখতে গিয়েই থমকে যেতাম। আমার পক্ষে কি আসলেই সম্ভব ?

BUY NOW

শেষ পর্যন্ত শুরু করলাম। শেষও করলাম। সরাসরি মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহন করা বীর মুক্তি যোদ্ধাদের স্মৃতিচারণ গুলো আমাকে খুব সাহায্য করেছে। সেই সাথে প্রচুর বইয়ের সাহায্য নিয়েছি যা বইয়ের শেষে উল্লেখ করার চেষ্টা করেছি। তারপরেও যদি কোনো ভুল হয়ে থাকে, তার জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করছি।

রকমারির ডট কমের সবগুলো বই পেতে..

Reaz Fahme

Reaz Fahme

উত্তরা, ঢাকা - মেইলঃ rfahme743@gmail.com

Leave a Comment

You May Also Like This Article

Rokomari-blog-Logo.png
Join our mailing list and get the latest updates
Loading