জাতির পিতাকে নিয়ে একুশে বইমেলায় কথাপ্রকাশের নতুন যত বই

জাতির পিতা

২০২০ সালের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে গেছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামটি। এ বছরই জাতির পিতার শততম জন্মবর্ষ উদযাপিত হলো। আর তাই এ বছরকে ঘোষণা করা হয়েছে ‘মুজিব বর্ষ’ হিসেবে। মুজিব বর্ষের প্রভাব পড়েছে এবারের বইমেলাতেও। আজ আমরা সংক্ষিপ্ত পরিসরে জানব কথাপ্রকাশ থেকে প্রকাশিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিষয়ক তিনটি বই সম্পর্কে।

বঙ্গবন্ধু অভিধান

বঙ্গবন্ধু অভিধান

প্রথমেই ‘বঙ্গবন্ধু অভিধান’ সম্পর্কে জানা যাক। লেখক ও সাংবাদিক শেখ সাদী বইটি লিখেছেন। বইটির নাম দেখলে এর সম্পর্কে কিছুটা ধারণা যেমন জন্মায়, তেমনি আবার কিছু দ্বিধার জন্মও ঘটে।

বঙ্গবন্ধু নিয়ে অভিধানটি কেমন হবে, একথা যারা ভাবছেন, তাদের জন্য প্রথমেই বলে নিচ্ছি- এটি আদতেই একটি অভিধান। সাধারণ অভিধানে যেমন বিভিন্ন শব্দের পাশে তার অনেক ধরনের অর্থ ও প্রয়োগ এক এক করে লেখা থাকে, তেমনি এ অভিধানেও বঙ্গবন্ধুর জীবনের সাথে জড়িত বিভিন্ন শব্দের পাশে তার উৎপত্তি, ইতিহাস ও ব্যাখ্যা লেখা রয়েছে। এরকমই কিছু শব্দ হচ্ছে ‘বিশ্ববন্ধু’, ‘ফরগটেন হিরো’, ‘জাতির জনক’, ‘সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি’ ইত্যাদি।

এসব বিশেষণ ছাড়াও তার জীবনের সাথে জড়িয়ে থাকা ব্যক্তিদের সম্পর্কেও বেশ খানিকটা বলা আছে এই বিশেষ ও বিচিত্র এ অভিধানে। বঙ্গবন্ধু কোনোভাবেই শুধু ব্যক্তিগত জীবন যাপন করতেন না, তাই তাঁর ৫৫ বছরের জীবনের সাথে যুক্ত সকল প্রকার রাজনৈতিক, দেশীয় ও আন্তর্জাতিক, সামাজিক বিভিন্ন টীকার সংযুক্তি রয়েছে এতে।

এ অভিধানের মাধ্যমে বর্তমান প্রজন্মের জন্য বঙ্গবন্ধুকে জানা অনেকটাই সহজ হবে। আর অভিধানের বিচিত্র এ পদ্ধতির মাধ্যমে বইটি অনেক বেশি সুখপাঠ্য হয়ে উঠেছে। জাতির পিতার জন্মশতবর্ষে শেখ সাদী এ বইটির মাধ্যমে তাঁর প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি জ্ঞাপন করেছেন।

পূর্ববঙ্গ থেকে বাংলাদেশ

পূর্ববঙ্গ থেকে বাংলাদেশ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও শেখ মুজিবুর রহমান

পূর্ববঙ্গ থেকে বাংলাদেশ, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও শেখ মুজিবুর রহমান বইটি সুপরিচিত কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন এর সাম্প্রতিকতম একটি গ্রন্থ। ২০১৭ সালে লেখিকা টেগোর ফেলোশিপ পেয়েছিলেন এবং সেসময় তিনি শিমলায় অবস্থান করছিলেন। তখনই তাকে বইটি লিখতে বলা হয়। কিন্তু দেশপ্রেমিক এ লেখিকা দেশের বাইরে থেকে দেশের সাথে জড়িয়ে থাকা এ বই লিখতে চাননি, পরে দেশে ফেরার পরই তিনি বইটির কাজ শেষ করেন এবং ২০২০ সালের একুশে বইমেলায় পাঠকসমাজ এর সাথে পরিচিত হয়।

এখানে দুজন বরেণ্য ও দুই ঘরানার ব্যক্তির নিজের মাতৃভূমিকে নিয়ে চিন্তা-ভাবনা তুলে ধরা হয়েছে। পূর্ববঙ্গ বা আজকের বাংলাদেশ, বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব- উভয়েরই অন্তরের খুব কাছের পটভূমি। দুজনে দুটো সময় এ ভূমিতে জন্ম নিয়েছেন। রবি ঠাকুর যখন মৃত্যুশয্যায়, শেখ মুজিব তখন টগবগে তরুণ।

দুজনের দেশপ্রেম এবং দেশের জন্য অবদানই ইতিহাস এবং সাহিত্যের অনস্বীকার্য ও অপরিহার্য। বাঙালির হৃদয়ে চিরকাল বাস করা কয়েকজন ব্যক্তির নাম বললে শুরুর দিকেই এই দুজনের নাম থাকবে। কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন তাই এ দুজনকে একই মলাটে বেঁধেছেন তাঁর এই নতুন বইয়ে। পূর্ববঙ্গ রবীন্দ্রনাথের জীবনযাপন ও লেখনীতে অফুরান শক্তি ও প্রাচুর্যের আকর ছিল এবং শেখ মুজিব ১৯৭১ সালে স্বাধীনতার অসীম দিগন্ত ভেবে এই পূর্ববঙ্গেই আপামর বাঙালিকে ডাক দিয়েছিলেন যুদ্ধের প্রান্তরে। এই দুটো দিকই বিশ্লেষিত হয়েছে বইটিতে। তাঁদের মনন ও মস্তিষ্কে পূর্ববঙ্গ কীভাবে ভিন্নধর্মী অনুপ্রেরণার জন্ম দিয়েছিল, সে কথাই জানা যাবে ও ভাবা যাবে এ বইটি পড়লে।

বঙ্গবন্ধু-বাংলাদেশ 

বঙ্গবন্ধু-বাংলাদেশ 

বঙ্গবন্ধু-বাংলাদেশ বইটি লিখেছেন বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কারে ভূষিত লেখক সনৎকুমার সাহা। বইয়ের নামে ‘বঙ্গবন্ধু’ ও ‘বাংলাদেশ’ শব্দ দুটিকে জুড়ে দেওয়া এই হাইফেনের মধ্যকার গভীরতা সম্পর্কেই জানতে পারা যাবে বইটির মাধ্যমে। এটি পড়লে ব্যক্তি শেখ মুজিবের চাইতেও অনেক বেশি করে জানা যাবে রাজনৈতিক শেখ মুজিবকে। আর সে পরিচয়টিই বাঙালি ও বাংলাদেশের ইতিহাসের সাথে সবচাইতে বেশি প্রাসঙ্গিক। 

বাংলাদেশের ইতিহাসের চড়াই-উৎরাই এবং ১৯৭১ কিংবা তার আগের ও পরের সময়ে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্ব, সবটাই কোনো না কোনোভাবে জড়িত। বঙ্গবন্ধুকে ছাড়া বাংলাদেশের অতীত বা ইতিহাস তো দূরের কথা, বর্তমানও কল্পনা করা যায় না। এখনও দেশের বিভিন্ন প্রতিকূল সময়ে আমাদের ভাবতে হয়, এসময় তিনি থাকলে কী পদক্ষেপ নিতেন? তাঁর নেতৃত্বের গুণাবলি, নেতা হিসেবে তাঁর উত্থান, তাঁর এ উত্থানের পেছনে ইতিহাসের অবদান, তাজউদ্দীনের সাথে তাঁর যুগলবন্ধী- প্রয়োজনীয় কিছুই বাদ দেননি লেখক। নেতা হিসেবে বঙ্গবন্ধুর শুরুটা জানলেই তাঁর কর্মমুখর জীবনের সফরটা বুঝতে শিখব আমরা। কেন এবং কীভাবে একজন বঙ্গবন্ধু জন্ম নেন এবং তাঁর জন্ম-উত্থান কীভাবে একটি পরাধীন জাতির জীবনকে খোলনলচে পাল্টে দেবার ক্ষমতা রাখে, এর সবটা আমরা প্রতিনিয়ত অনুভব করলেও বইয়ের হরফে যুক্তি, আবেগ ও ঐতিহাসিক বিশ্লেষণের একটা সুযোগ পাব।

কথাপ্রকাশ থেকে ২০২০ সালের একুশে বইমেলায় প্রকাশিত তিনটি বইয়ের মূল বিষয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলেও বইয়ের আধেয়তে রয়েছে বৈচিত্র্য ও এবং অত্যন্ত সমৃদ্ধ বিশ্লেষণ। এ বইগুলো পড়লে ব্যক্তি শেখ মুজিবকে যেমন জানতে পারবেন, তেমনি রাজনৈতিক ও বাঙালির প্রিয় নেতা শেখ মুজিবকেও জানতে পারবেন। সাথে উপরি হিসেবে বিশ্বকবির নিজস্ব ভাবনা তো রয়েছেই।

এই ব্লগটি লিখেছেন অনিন্দিতা চৌধুরী

Rokomari Editor

Rokomari Editor

Rokomari is one of the leading E-commerce book sites in bangladesh

Leave a Comment

Rokomari-blog-Logo.png
Join our mailing list and get the latest updates
Loading