নভেম্বর-২০২১ এর ৫টি বেস্ট সেলার উপন্যাস

৫ টি জনপ্রিয় উপন্যাসের রিভিউ
রকমারি ডট কমে সর্বাধিক বিক্রিত উপন্যাস

বাঙালীর বই পড়া জীবনের বেশিরভাগ সময় ধরে যেই ঘরানার বইগুলো সবচেয়ে বেশি সময় পড়া হয় সেগুলোর মধ্যে একটি হলো উপন্যাস। বাংলা ভাষা তো বটেই পৃথিবীর যে কোন ভাষার সাহিত্যে উপন্যাসের যাত্রা এখন জয়জয়াকার। এমনকি সাধারণ যে কোন পাঠককে যদি আপনি জিজ্ঞেস করেন পছন্দের পাঁচটি বইয়ের নাম বলতে, তবে অবশ্যই তার মধ্যে একাধিক উপন্যাসের নাম পাওয়া যাবে। সর্বাধিক বিক্রিত উপন্যাস থেকে খুঁজে খুঁজে অনেক পাঠকই বই কিনে থাকেন। বইমেলায় সর্বাধিক বিক্রিত উপন্যাস যদি দেখা হয় তবে তার পাঠকই সংখ্যায় অনেক বেশি। পাঠকরা ইচ্ছেমত উপন্যাস খুঁজে নেয়ার বাইরেও দেখে নিতে পারেন নভেম্বর-২০২১ এর ৫টি বেস্ট সেলার উপন্যাস ।

১. শিকদার সাহেবের দিনলিপি (মৌরি মরিয়ম)

 

বেস্ট সেলার উপন্যাস - শিকদার সাহেবের দিনলিপি
BUY NOW

‘শিকদার সাহেবের দিনলিপি’ বইটি মূলত ‘হাওয়াই মিঠাই’ বইটির একটি অংশ। হাওয়াই মিঠাইতে একটি ডায়েরির কথা উল্লেখ ছিল কিন্তু ডায়েরির ভেতর কী লেখা তা পাঠক জানতে পারেনি। সেই ডায়েরিটি নিয়েই লেখা হয়েছে এই বইটি। আর শিকদার সাহেবের দিনলিপি বইটি নভেম্বর মাসে সর্বাধিক বিক্রিত উপন্যাস হিসেবে উঠে এসেছে শীর্ষে।

তবে বইটি সম্পর্কে লেখক মৌরি মরিয়ম বলেন, ‘বইটি লিখতে লিখতে এক পর্যায়ে আমার মনে হচ্ছিল আমি একজন পুরুষ এবং আমার জীবনে ঘটে যাওয়া ঘটনাগুলো আমি লিপিবদ্ধ করছি। বইটি আসার কথা ছিল জুলাইতে। কিন্তু শিকদার সাহেবের জীবনের কঠিন সময়টা লিখতে গিয়ে তার হতাশ বিষণ্নতাগুলো এমনভাবে আমার ভেতর ঢুকে যায় যে, আমি লেখায় অনেক পিছিয়ে পড়ি। সারাদিন রাত আমার বিষণ্ণতায় কাটত, কিছুই ভালো লাগতো না। অনেক মাস এভাবে কেটে যাওয়ার পর যে মুহুর্তে আমি বিষয়টি অনুধাবন করতে পারলাম তখন থেকে আবার নিজেকে নিজের নিয়ন্ত্রনে এনে লেখা শেষ করি। পাঠকদের এতদিন অপেক্ষা করানোর জন্য ক্ষমাপ্রার্থী। আশা করছি হাওয়াই মিঠাই ভক্তদেরকে এই বইটি কিছু বিশেষ অনুভূতি দিতে পারবে’। আর এই বইটি প্রকাশের পরপরই নভেম্বর মাসে উঠে এসেছে বেস্ট সেলার উপন্যাস -এর তালিকায়।

২. মাকতুব (পাওলো কোয়েলহো)

 

মাকতুব
BUY NOW

‘দ্য আলকেমিস্ট’ বইটি দিয়ে পুরো পৃথিবীতে জনপ্রিয় পাওয়া পাওলো কোয়েলহোর অন্যতম বই ‘মাকতুব’। বেস্ট সেলার উপন্যাস হিসেবে তালিকা করলে সবসময়ই থাকে পাওলো কোয়েলহোর নাম। কিন্তু এবার রকমারি ডট কমের নভেম্বর মাসের বেস্ট সেলার উপন্যাস হিসেবে উঠে এসেছে পাওলো কোয়েলহোর অন্যতম বই মাকতুবের নাম।

মাকতুব শব্দটির অর্থ হলো যা লেখা হয়েছে। তবে আরবেরা মনে করে, এই অনুবাদ যথার্থ নয়। কারণ এতে মনে হতে পারে যে আল্লাহ সবকিছু আগে থেকেই নির্ধারণ করে দিয়েছেন, ফলে বান্দার কিছুই করার নেই। বাস্তবতা কিন্তু তা নয়। মানুষের অবশ্যই ভালো-মন্দ বিচার করে কাজ করার দায়িত্ব আছে। আবার সবকিছু লেখা হয়েছে- তাও সত্যি। দুটির মধ্যে একটি সূক্ষ্ম ভারসাম্য আছে। সবকিছু ইতোমধ্যেই লেখা হয়ে থাকলেও আল্লাহ করুণাময় আমাদের সহায়তা করতে চান বলেই এসব কিছু লেখা হয়েছে। এ বইতে সংক্ষিপ্ত যেসব ঘটনা বলা হয়েছে, তা বিবেচনা করা হলে মনে হতে পারে এটিই যথার্থ নামকরণ। এই বইয়ে কোনো বক্তব্য বা কাহিনী কোনোভাবেই বড় নয়। আবার কোনোটি অপরটির সাথে কোনোভাবে সম্পৃক্তও নয়। তবে প্রতিটি কাহিনীতে রয়েছে গ্রহণ করার মত শিক্ষা। পড়তে পড়তে পাঠককে চিন্তামগ্ন হতেই হবে, মুগ্ধতার সৃষ্টি করবে। অতি সরল এসব কাহিনীর মূল্য কিন্তু আমূল্য। কোনো কোনোটি ব্যকুলতা সৃষ্টি করতে পারে, আবার কোনো কোনোটি আপনার চেহারা উজ্জ্বল করে তুলতে পারে মনের মতো কিছু পাওয়ার আনন্দে। এখানে বদলানোর প্রয়োজনের কথা মনে করিয়ে দেবে। এগুলো আমাদের জীবনের অনেক প্রশ্নকে সামনে নিয়ে আসবে; আমার জীবন কোন দিক যাচ্ছে? আমার সত্যিকার অর্থে কী প্রয়োজন? আমি এই কাজ কেন করছি? আমাকে সত্যিকারের খুশি করে কোন জিনিসটি ইত্যাদি ইত্যাদি।

পাওলো কোয়েলহোর আগ্রহী পাঠকদের কাছে এই সুর নতুন কিছু নয়। এই সুর বিষয়বস্তু পাওলো কোয়েলহোর অন্যান্য বইয়েও প্রবলভাবে ছড়িয়ে আছে। তিনি ওইসব বইয়ের কাহিনী এসব চিন্তাধারার সাথে এমনভাবে গেঁথে নিয়েছেন যে মনেই হবে না এগুলো অন্য কোনো সূত্র থেকে নেওয়া হয়েছে। পড়তে পড়তে পাঠকদের ভাবনায় আসবে, লেখক পাওলো কোয়েলহো কিভাবে গোপন কুঠুরীতে থাকা কথাগুলো অবলীলায় বলতে পারতেন। আবারো স্বীকার করতে হবে, তিনি কখনো উদ্দীপনা সৃষ্টি করতে ব্যর্থ হন না। এগুলোর কোনো একটিই জীবনকে প্রবলভাবে প্রভাবিত করতে পারে। পারে না?

৩. শূন্য (হুমায়ূন আহমেদ)

 

শূণ্য
BUY NOW

হুমায়ূন আহমেদ প্রয়াত হয়েছেন বেশ কয়েক বছর আগে। কিন্তু এখনও বেস্ট সেলার উপন্যাস নিয়ে তালিকা করলে থাকে হুমায়ূনের কোন না কোন বইয়ের। গত মাসে রকমারি ডট কমের বই বিক্রির হিসেবও এর বাইরে যায়নি। এই মাসে বেস্ট সেলার উপন্যাস থেকে তালিকা করতে গিয়ে উঠে এসেছে হুমায়ূন আহমেদের সায়েন্স ফিকশন শূন্যের নাম।

এই সায়েন্স ফিকশনের মূল চরিত্র হল মনসুর সাহেব। তিনি একজন স্কুল-শিক্ষক। তার পরিবার-পরিজন বলতে তেমন কেউ নেই। একা একা থাকেন। আর দিন-রাত গণিতের বিভিন্ন জটিল জটিল সমস্যা নিয়ে ভাবেন। এক রাতে তিনি ঝড়-বৃষ্টির মধ্যে বাড়ি ফেরার সময় বজ্রাহত হন। তারপর থেকে তার মধ্যে বিভিন্ন অপ্রকৃতস্থতা লক্ষ্য করা যায়। তিনি একজনকে সব সময় তার সাথে দেখতে পান, যে কি না নিজেকে শূন্য জগতের বাসিন্দা বলে দাবি করে। সে যুবক আরও দাবি করে যে, সে মনসুর সাহেবকে সাহায্য করার জন্য এসেছে। এরপর থেকে লেখেক গল্পে বিরাট মায়াজাল সৃষ্টি করেছেন। এই শূন্য জগত থেকে আসা যুবক যাকে মনসুর সাহেব তার প্রিয় রাশিমালার নামে ফিবোনাক্কি বলে ডাকেন, তার কি আসলেই বাস্তব জগতে কোন অস্তিত্ব আছে না কি সে শুধুই মনসুর সাহেবের কল্পনা? এই প্রশ্নের উত্তর গল্পের শেষে পাওয়া যায়। এদিকে দেখা যায় মনসুর সাহেব ফিবোনাক্কি রাশি ব্যবহার করে এক জটিল গাণিতিক রহস্য সমাধানের প্রায় দ্বারপ্রান্তে চলে এসেছেন। যেই সমস্যা মনসুর সাহেবের দাদা এবং বাবাও সমাধান করার চেষ্টা করেছিল। অর্থাৎ তারা তিন পুরুষ ধরে এই কাজটি করেছেন। কিন্তু মনসুর সাহেবের কোন উত্তরাধিকার না থাকায় তাকে এই সমস্যাটা সমাধান করতেই হবে। এদিকে তার শরীরও ক্রমশই খারাপ হয়ে যাচ্ছে। তার সময় শেষ হয়ে আসছে। তিনি কি পারবেন এই সমস্যার সমাধান করতে? মনুষ্য জাতি কি সক্ষম হবে এমন এক রহস্যের সমাধান বের করতে যা তাদেরকে শূন্য মাত্রার জগতে প্রবেশ করতে সহায়তা করবে? ‘শূন্য’ বইটি সর্বাধিক বিক্রিত উপন্যাস হবার পাশাপাশি এর একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য হল এখানে গল্পের কাহিনী বিজ্ঞানের খুব কাছাকাছি থেকে তৈরি করা হয়েছে।

৪. স্মৃতিগন্ধা (সাদাত হোসাইন)

 

স্মৃতিগন্ধা
BUY NOW

বইটি ভিন্নধর্মী দু’জন প্রেমিক যুগলের সংগ্রাম,ত্যাগ ও তীব্র ভালোবাসার আসক্তির উপাখ্যান, অসহায় বাবার ভগ্ন হ্রদয়ের আত্নচিৎকারের উপাখ্যান, মুক্তিযোদ্ধা নামক মুখোশধারী এক রাজাকারের এক হিন্দু পরিবারের প্রতি অসহনীয়, নিমর্ম অত্যাচারের উপাখ্যান, মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী ইতিহাসের উপাখ্যান।

বইটি পড়ে পাঠ প্রতিক্রিয়ায় একজন পাঠক লিখেছিলেন, ‘ভালোবাসা কোনো জাতি-ধর্ম-বর্ণ মানে না। কিছু কিছু জীবনের গল্প নাটক সিনেমাকেও হার মানায়। ভালোবাসাও এরকম বিশুদ্ধ হতে পারে, আচ্ছা আজকাল কি আমাদের সমাজে এমন বিশুদ্ধ ভালোবাসার দৃষ্টান্ত আছে। ভালোবাসা তো এমনি হওয়া উচিত স্বর্গীয়, দ্বিধাহীন, স্বার্থহীন, অন্ধবিশ্বাস। ভুবনডাঙ্গা গ্রামের অপরূপ সৌন্দর্য, পারু-চারু দু’বনের খুনসুটি-দুষ্টুমি, পারু-ফরিদের স্বর্গীয় ভালোবাসা, বাবা মহিতোষের মেয়ে হারানোর আত্নচিৎকার, জাহাঙ্গীর ভূঁইয়ার অসহায় হিন্দু পরিবারের প্রতি অত্যাচার, আশরাফ খাঁ-র মহত্ত্ব, দিলারা ভাবির দুষ্টুমি, মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী ইতিহাস খুব মার্জিতভাবে ফুটে ওঠেছে ‘স্মৃতিগন্ধা’ উপন্যাসে’।

বইটির ফ্ল্যাপে লেখা আছে-

জীবনানন্দের কবিতাটা একটু অন্যরকম করে বলি? কী রকম?

ফরিদ হাসল, ‘থাকে শুধু অন্ধকার, মুখোমুখি বসিবার, আমি আর পারুলতা সেন’।

পারু বলল, পারুলতা সেন কে? ‘তুমি’। ‘আমি সেন? উহু। তুমি হচ্ছো স্মৃতি। ‘আমি স্মৃতি হতে যাব কেন? মানুষ হারিয়ে গেলে স্মৃতি হয়। না, মানুষ স্মৃতি হয় না। স্মৃতি হয় সময়। কীভাবে? এই যে ধরো, আমাদের রোজ কত কত গল্প। কত কত স্মৃতি। এগুলো একটু একটু বুকে গেঁথে থাকে। এই যে প্রতিদিনের প্রতিমুহূর্তের তুমি বুকে জমা হতে থাকো, এটাই স্মৃতি। আজ থেকে অনেক বছর পর, যখন আমরা বুড়ো হয়ে যাব, তখন এই প্রতিদিনের তুমি কল্পনায় একটু একটু করে জেগে উঠতে থাকবে। সেটা তো আসল সময়ই। তুমি তো তখনো থাকবে। কিন্তু এই সময়টা তখন স্মৃতি হয়ে সুবাস ছড়াতে থাকবে। পারু কথা বলল না। ফরিদ বলল, ‘আসলে মানুষ হারিয়ে যায় না। হারিয়ে যায় সময়।

আর তখন এই সময়ই স্মৃতি হয়ে গন্ধ বিলায়। সুবাস ছড়াতে থাকে। হয়ে ওঠে স্মৃতিগন্ধা।

৫. ইন্দুবালা ভাতের হোটেল (কল্লোল লাহিড়ী)

 

ইন্দুবালা ভাতের হোটেল
BUY NOW

খুলনার কলাপোতা গ্রামের ইন্দুর বিয়ে হলো কলকাতায়। দোজবরে মাতাল এক পুরুষের সঙ্গে। তিন সন্তান নিয়ে অল্পকালেই বিধবা। তারপর পূর্ব পাকিস্তান যেদিন হলো বাংলাদেশ, সেদিনই ছেনু মিত্তির লেনে প্রথম আঁচ পড়লো ইন্দুবালা ভাতের হোটেলে। এই উপন্যাসে ছেনু মিত্তির লেনের ইন্দুবালা ভাতের হোটেল ছুঁয়ে থাকে এক টুকরো খুলনা আর আমাদের রান্নাঘরের ইতিহাস– মন কেমনের গল্প।

ইদানীং কালে দুই বাংলায় সর্বাধিক বিক্রিত উপন্যাস হলো ইন্দুবালা ভাতের হোটেল। যার মধ্যে ডুবে গিয়েছিলো অসংখ্য পাঠক। রকমারি ডট কমের নভেম্বর মাসে সর্বাধিক বিক্রিত উপন্যাস তালিকা করতে গিয়ে উঠে এসেছে কল্লোল লাহিড়ীর লেখা ইন্দুবালার গল্পও।

আরও পড়ুন-  নভেম্বর-২০২১ এ সর্বাধিক বিক্রিত ৫ টি মোটিভেশনাল বই

অন্যান্য সমকালীন উপন্যাস দেখতে ক্লিক করুন 

 

Zubayer Ibn Kamal

Zubayer Ibn Kamal

For the last half a decade, I have been writing stories, articles, features, and other content in various national level magazines. I am most interested in creative writing. I have read thousands of fiction books in the last few years. I have memorized the book of the last revelation of God. My day goes by reading books and thinking.

Leave a Comment

You May Also Like This Article

Rokomari-blog-Logo.png
Join our mailing list and get the latest updates
Loading