২০২১-এর নভেম্বর ও ডিসেম্বর মাসের বেস্ট সেলার ইসলামি বই

যে ধর্মীয় বইগুলো সাড়া ফেলেছে পাঠকদের মধ্যে
সর্বাধিক বিক্রিত ইসলামিক বই

২০২১ সালে রকমারি ডট কমে সর্বাধিক বিক্রিত ইসলামি বই থেকে একদম উপরে থাকা বেশ কিছু বইয়ের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেয়া হবে পাঠকদের। সাধারণ পাঠকরা যেসব বই নিজেরা কিনেছেন এবং অন্যদের উপহার দিয়েছেন রকমারি থেকে, বেস্ট সেলার ইসলামি বই থেকে সেসবের তালিকা বিস্তারিত থাকলো সম্পূর্ণ লেখায়। চলুন শুরু করা যাক।

১. রাসূলুল্লাহ (সা.) এর সকাল সন্ধ্যার দু’আ ও যিকর এবং দোয়ার কার্ড

 

সকাল সন্ধ্যার দুআ ও যিকর
BUY NOW

শায়খ আহমাদুল্লাহের লেখা পেপারব্যাক বাঁধাইয়ের তৈরি রাসূলুল্লাহ (সা.) এর সকাল সন্ধ্যার দু’আ ও যিকর এবং দোয়ার কার্ড ইসলামি বই ক্যাটাগরি থেকে নভেম্বর মাসে উঠে এসেছে সবার শীর্ষে। বইটির ভূমিকায় লেখক শায়খ আহমাদুল্লাহ বইটির অষ্টম সংস্করণ সম্পর্কে উচ্ছাস প্রকাশ করে লিখেছেন, ‘মহান আল্লাহর অশেষ অনুগ্রহে রাসুলুল্লাহ -এর সকাল-সন্ধ্যায় দু’আ ও যিকর পুস্তিকাটির অষ্টম সংস্করণ প্রকাশিত হতে যাচ্ছে, আলহামদু লিল্লাহ। এই পুস্তিকায় বিশুদ্ধ সূত্রে বর্ণিত সকাল-সন্ধ্যার বিভিন্ন দু’আ ও যিকর সংকলনের চেষ্টা করেছি। কিছু কিছু দু’আর বিশুদ্ধতা নিয়ে মতপার্থক্য রয়েছে, সেসবের মধ্যে শুদ্ধতার পাল্লা ভারি অথবা মোটামুটি গ্রহণযোগ্য- এমন কিছু দু’আ এখানে উল্লেখ করেছি। কোন ভাষার যথার্থ উচ্চারণ অন্য ভাষার অক্ষর দিয়ে সম্ভব নয়; বরং সেক্ষেত্রে বিকৃতির আশংকাই বেশি থাকে। যাদের সরাসরি আরবী পড়তে কষ্ট হয় তাদের নিছক সহায়তার জন্য বাংলা উচ্চারণ দিয়েছি। সুতরাং বাংলা উচ্চারণের ওপর নির্ভর না করে মুল আরবী উচ্চারণ শিখে নেওয়ার অনুরোধ থাকল’।

নভেম্বর মাসে সর্বাধিক বিক্রিত ইসলামিক বই থেকে আলাদা করে এই বইটি ধর্মপ্রান মুসলমান ও দুয়ার ব্যাপারে চিন্তাশীল মানুষদের জন্য অনেক বেশি কার্যকর হবে।

২. প্যারেন্টিং (নাজমা জামান)

 

প্যারেন্টিং
BUY NOW

পবিত্র কুরআনের সূরা মুনাফিকুনের ৯ নং আয়াতে মহান আল্লাহ তা’আলা আমাদেরকে সতর্ক করে বলেছেনঃ ‘মুমিনগণ, তোমাদের ধন-সম্পদ ও সন্তান যেন তোমাদেরকে আল্লাহর স্মরণ থেকে ফিরিয়ে না রাখে’। আবার সূরা আত-তাগাবুনের ১৫ নং আয়াতে আল্লাহ তা’আলা বলেছেনঃ ‘তোমাদের ধন-সম্পদ ও সন্তান-সন্তুতি তো কেবল পরীক্ষা স্বরূপ। আর আল্লাহর কাছে রয়েছে মহা পুরস্কার’। সর্বাধিক বিক্রিত ইসলামিক বই থেকে আলাদা করে এই বইটিকে রাখার কারণ হলো, এর বিষয়বস্তু হিসেবে নির্ধারণ করা হয়েছে সন্তানকে লালন ও বড় করার ব্যাপারে।

বইটির ভূমিকায় লেখক লিখেছেন- ‘সন্তান-সন্তুতির ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে আমরা কত কিছুই না করছি। আর সেই সন্তান যদি সত্যিকারের অর্থে “মুসলিম” না হয় তাহলে আমাদেরকে আখিরাতের ময়দানে কঠিন জবাবদিহি করতে হবে এবং এই সন্তানই কিয়ামতের দিন তার মা-বাবার বিরুদ্ধে সাক্ষী দেবে। তাই আমরা যেন সন্তানের ভবিষ্যত নিয়ে একমুখী চিন্তা না করি। আমরা যদি এই বইটি থেকে পকৃতভাবে উপকৃত হতে চাই তাহলে বইটি একবার পড়েই যেন রেখে না দেই। একটু কষ্ট হলেও বইটি কয়েকবার মনোযোগ দিয়ে পড়ি এবং বোঝার চেষ্টা করি। যে বিষয়গুলো পাঠকের কাছে জরুরী বলে মনে হয় সেগুলো হাইলাইটার পেন দিয়ে হাইলাইট করি। বিষয়গুলো গভীরভাবে চিন্তা করি এবং অন্যদের সঙ্গেও শেয়ার করি। আমাদের লেখা বইগুলোর উদ্দেশ্য অন্যান্য গতানুগতিক বইয়ের মতো নয়। এটি আমাদের মত সাধারণ মুসলিমদের জন্য কুরআন-সুন্নাহর আলোকে একটি (অনুশীলনমুলক বই) এবং সেই সাথে একটি গাইডলাইন। আমাদের উদ্দেশ্য সন্তানদের নিয়ে একটি সুখী ও সুন্দর পরিবার গঠন এবং একই সাথে একটি সুন্দর সমাজ ও দেশ গঠন, যাতে এই পৃথিবীতেও সফল হওয়া যায় এবং একই সঙ্গে পরকালেও সফল হওয়া যায়’।

৩. আল কুরআনের কাব্যানুবাদ (মুহিব খান)

 

আল কুরআনের কাব্যানুবাদ
BUY NOW

কবিতায় কবিতায় সম্পূর্ণ ৩০ পারা কুরআনের বাংলা অনুবাদ। ভাষা ও সাহিত্যে এ এক বিস্ময়কর কীর্তি!

গত মাসে বেস্ট সেলার ইসলামি বই থেকে এই বইটি নির্বাচন করা হয়েছে অন্য একটি কারণে। বাংলা ভাষায় পবিত্র কুরআনের পূর্ণাঙ্গ অনুবাদ এই প্রথম। মজার ব্যাপার হলো, কবিতা বলে এর বর্ণনাধারা জটিল, কঠিন বা দুরূহ নয় মোটেও; এর পুরো অনুবাদ অত্যন্ত সহজ, সাবলীল ও সার্বজনীন। কাব্যানুবাদ- তাই বলে এ রচনা কিন্তু রহস্যময় বা কল্পনাজালে আকীর্ণ নয়; এমনকি এটা কুরআনের ভাব বা মর্মানুবাদও নয়। বরং কুরআনের পূর্ণাঙ্গ, বিশুদ্ধ ও মূলানুগ একমাত্র কাব্যনুবাদ এ রচনা।

শুধু বাংলা ভাষাতেই নয়, সংশ্লিষ্টরা বলছেন, গোটা বিশ্বেই এর কোনো নজির খুঁজে পাননি তারা! বুঝতেই পারছেন, কতটা অতুলনীয় ও অসাধারণ কাজ এটি। কুরআনের অর্থ পড়া, বোঝা ও মুখস্থ করার জন্য বড়-শিশু সকলের জন্য এটি অত্যন্ত উপযোগী ও কার্যকরী। গৌরবময় ও ঐতিহাসিক এই গ্রন্থের রচয়িতা আলেম লেখক ও কবি মুহিব খান।

৪. দ্য প্রফেট (লেজলি হ্যাজলটন)

 

দ্য প্রফেট - লেজলি হেইজেলটন
BUY NOW

২০২১-এ বেস্ট সেলার ইসলামি বই থেকে আলাদা করলে এই বইটি অনুবাদ হিসেবে অনন্য একটি বই। যেটি মুল গ্রন্থ থেকে সরাসরি অনুবাদ করেছেন আব্দুল্লাহ ইবনে মাহমুদ। এই বইটি এক অবাক করা মানুষের অনবদ্য জীবনকথন- যে মানুষটির প্রচারিত বাণী আজ প্রায় দেড় হাজার বছর পরে এসে পালন করছে প্রায় দেড়শ কোটিরও বেশি মানুষ। যে পৃথিবীর আলো বাতাসে একদিন তিনি বুক ভরে নিঃশ্বাস নিয়েছেন, বদলে দিয়েছেন সে পৃথিবীটিকেই। কিন্তু আর আট-দশটি বইয়ের সাথে পার্থক্য হলো, এ বইটি যে সাংবাদিক লিখেছেন তিনি জন্মসূত্রে ইহুদী। যে ইহুদী সম্প্রদায়কে বৈরিতার চোখে দেখা হয়, সে সম্প্রদায়েরই একজনের লেখায় নির্মোহ দৃষ্টিভঙ্গিতে যখন ইসলামের শেষ নবী হযরত মুহাম্মাদ (সা) এর মহানুভবতা উঠে আসে, তখন তো বইটি আলাদা হবেই! লেজলি হেইজেলটন মুহাম্মাদ (সা) এর জীবনের উল্লেখযোগ্য ঘটনাগুলোকে যেন জীবন্ত করে তুলে এনেছেন অক্ষরবন্দী করে। প্রাচীনতম সীরাত বইগুলোকে আশ্রয় করে সমসাময়িক ইতিহাসবিদদের বিশ্লেষণে তিনি তুলে এনেছেন দেড় হাজার বছর আগের হেজাজের মরুভূমিকে। চমৎকার গবেষণা আর অনুসন্ধান শেষে লেজলি হেইজেলটন লিখেন তার ‘দ্য ফার্স্ট মুসলিম’ বইটি, যেটি পড়লে মনেই হবে না আপনি কোনো জীবনীগ্রন্থ পড়ছেন, বরং মনে হতে পারে পড়ছেন শিহরণ জাগানো এক গল্প। কিন্তু গল্পটি সত্যি!

কখনো আদর্শবাদী কখনো বাস্তববাদী, কখনও দীন-প্রচারক, কখনও শাসক আর বিচারক, কখনও বা জড়িয়ে পড়েছেন যুদ্ধে আর কখনও অহিংসার আদর্শে- কখন কী কারণে কবে কেমনটি হয়েছিলেন তিনি? বিশ্বনন্দিত ‘দ্য ফার্স্ট মুসলিম’ বইটির বাংলা রূপায়ণ ‘দ্য প্রফেট’ কেবল সেই মানুষটির জীবনকথাই নয়, বরং তাঁর চিরস্থায়ী এক কিংবদন্তির উপাখ্যান। কোটি কোটি মানুষের অন্তরে তিনি স্রষ্টা প্রেরিত শেষ নবী। সম্পূর্ণ ভিঙ্গিকে বইখানা পড়ে পাঠককুল হতাশ হবেন না আশা রাখি।

৫. রাসূল (স.) এর শ্রেষ্ঠ সীরাত গ্রন্থ: আর রাহীকুল মাখতূম

 

আর রাহীকুল মাখতূম
BUY NOW

বইয়ের ফ্ল্যাপের লেখা আছে- ‘আল্লাহ তায়ালা নিজেই যদি কারও কপালে সফলতার রাজটিক লাগিয়ে দিতে চান, তবে তাকে অসফল করার সাধ্য কার? আল্লাহ তায়ালা যদি কাউকে প্রকাশ করতে চান, তবে তাকে ঢেকে রাখার সামর্থ্য কার? একদিন হিন্দুস্তানের এক মাদ্রাসার সংকির্ণ চৌহদ্দিই ছিল যার যাবতীয় কর্মকান্ডের সীমারেখা, আজ তার সবগুলি ছাঁপিয়ে উঠে গোটা পৃথিবীর মঞ্চে তিনি বরেণ্য, আলোচিত ও সমাদৃত। আজ তাঁর পরিচয় কালজয়ী সীরাতগ্রন্থ “আর রাহীকুল মাখতুম” প্রণেতা শাইখ সফিউর রহমান (রহ)। সীরাতে রাসুলের ইতিহাসে আর রাহীকুল মাখতুম কি যে এক বিস্ময়কর আন্দোলন ও আলোড়নের ঢেউ তুলেছিল তার সঙ্গে আজ কাউকেই আর নতুন করে পরিচয় দেওয়ার প্রয়োজন নেই। বস্তুত এটা ছিলো বিশ্ব সীরাত ভাণ্ডারে বর্তমান সময়ের এক অনুপম ও অনবদ্য সংযোজনা। আর এ ক্ষেত্রে সকল কৃতজ্ঞতার উপযুক্ত মালিক হলেন মহান আল্লাহ তায়ালা।

অন্যান্য ইসলামি বই দেখতে ক্লিক করুন 

 

Zubayer Ibn Kamal

Zubayer Ibn Kamal

For the last half a decade, I have been writing stories, articles, features, and other content in various national level magazines. I am most interested in creative writing. I have read thousands of fiction books in the last few years. I have memorized the book of the last revelation of God. My day goes by reading books and thinking.

Leave a Comment

You May Also Like This Article

Rokomari-blog-Logo.png
Join our mailing list and get the latest updates
Loading