মার্কেটিং-এ ক্যারিয়ার গড়বেন কীভাবে?

গালীব বিন মোহাম্মদ

ভালো পারফর্মেন্স দিয়ে কাজ করতে পারলে সব ধরনের জব’ই সিকিউরড জব। আর পারফর্মেন্স ভালো না থাকলে কোনো জব’ই সিকিউরড নয়। ভালো পারফর্মেন্স দিয়ে কাজ করতে চাইলে মার্কেটিং-এ যেকেউ ক্যারিয়ার গড়তে পারেন। কথাগুলো বলছিলেন আরলা ফুড এর হেড অব মার্কেটিং গালীব বিন মোহাম্মদ। ক্যারিয়ার ক্যাফে লাইভের ১৮তম পর্বে রবির ভাইস-প্রেসিডেন্ট জাভেদ পারভেজের মুখোমুখি হয়ে ক্যারিয়ার ইন মার্কেটিং নিয়ে কথা বলেন তিনি। মার্কেটিং-এ ক্যারিয়ার নিয়ে গালীব বিন মোহাম্মদের দীর্ঘ আলাপচারিতার গুরুত্ব অংশ নিয়েই এই লেখাটি।

মার্কেটিং-এর ব্যপ্তি

গালীব বিন মোহাম্মদ বলেন, মার্কেটিং এর ব্যাপক পরিধি। কোম্পানির রিক্রুটমেন্ট থেকে শুরু করে ডিস্ট্রিবিউশন পর্যন্ত পুরো সার্কেলটাই মার্কেটিং-এর আওতায় পড়ে। মার্কেটিং-এর প্রথম ধাপ হলো নিজের বিজনেস পারপাস বুঝতে পারা। তারপর সাধারণ ক্রেতাদের প্রয়োজন বুঝা। সে অনুযায়ী পণ্য তৈরি ও ডেভেলপ করে ডিস্ট্রিবিউশন অর্থাৎ ক্রেতার কাছে পণ্যকে পৌঁছে দেওয়া পুরো বিষয়টিই মার্কেটিং-এর কাজ। এর বাইরে পণ্য বিক্রির মাধ্যমে কোম্পানিকে প্রফিট এনে দেওয়া ও ক্রেতাকে ধরে রাখাও মার্কেটিং-এর কাজের মধ্যে পড়ে।

মার্কেটিং মানেই অ্যাডভারটাইজিং নয়

অনেকে ভেবে থাকেন মার্কেটিং মানেই অ্যাডভারটাইজিং। গালীব বিন মোহাম্মদ বলেন, এটি একটি ন্যারো ধারণা। মার্কেটিং-এ অ্যাডভার্টাইজিং-এর কাজ মাত্র ১০-১৫ শতাংশ। মার্কেটিং-এর অন্যান্য কাজগুলো অ্যাডভারটাইজিং-এর আগে বা পরে শুরু হয়।

অন্য ব্যাকগ্রাউন্ড থেকে মার্কেটিং 

যেকোনো ব্যাকগ্রাউন্ড থেকে এসে মার্কেটিং-এ কাজ করা যাবে। তবে এজন্য তাকে অনেক বেশি জানতে ও পড়তে হবে। যে শিক্ষার্থী চার বছর মার্কেটিং নিয়ে পড়াশোনা করেছে সে ইতিমধ্যে মার্কেটিং-এর নানা রকম টার্ম, থিওরি ফর্মুলা সম্পর্কে জানেন। অন্য ব্যাকগ্রাউন্ড থেকে যে মার্কেটিং-এ আসবে তাকে নিজ চেষ্টা এই ঘাটতি পূরণ করতে হবে। তাহলেই সে মার্কেটিং-এ ভালো কাজ করতে পারবে।

প্যাশনেট মার্কেটার হতে হলে

গালীব বিন মোহাম্মদ বলেন, প্যাশনেট মার্কেটার হতে হলে তিনটি গুণ থাকতে হবে। প্রথম গুণটি হলো- আপনাকে অবশ্যই এক্সট্রোভার্ট হতে হবে। মার্কেটিং-এর প্রত্যেকটি কাজ মানুষের সাথে সম্পৃক্ত। মার্কেটিং যেহেতু বিজিনেস ইউনিট তার মানে মার্কেটিং বিভাগ যা ভাবে অন্যান্য বিভাগকেও তা রিয়েলাইজড করিয়ে সাপোর্ট আদায় করতে হবে। কাজেই আপনি যদি বেশি মানুষের সাথে কমিউনিকেশন করার অভ্যাস না থাকে তাহলে মার্কেটিং আপনার জন্য নয়। দ্বিতীয় গুণটি হলো- আপনাকে অনেক বেশি পড়তে হবে। সব বিষয়ের উপর পড়াশোনা করতে হবে। তাহলে আপনি মানুষের ক্যারেক্টার ও কালচার সম্পর্কে জানতে পারবেন। মানুষকে রিড করতে পারার জন্য পড়াশোনার বিকল্প নেই। তৃতীয় বিষয়টি হলো- প্রতিনিয়ত নিজেকে ছাড়িয়ে যাওয়ার প্রবণতা থাকতে হবে। নিজের থেকে নিজের সর্বোচ্চটা বের করে আনতে হবে। এই তিনটি গুণ থাকলেই কেবল আপনি একজন প্যাশনেট মার্কেটার হতে পারবেন।

মার্কেটিং-এর বেসিক একই থাকবে

গালীব বিন মোহাম্মদ বলেন, মার্কেটিং-এর মূল কাজ মানুষের পাল্‌স বুঝতে পারা। এটা অতীতে যেমন ছিল, ভবিষ্যতেও তেমন থাকবে। প্রযুক্তির উৎকর্ষতার কারণে হয়তো টুলসের পরিবর্তন আসবে কিন্তু বেসিক জিনিসগুলোর কোনো পরিবর্তন আসবে না।

ডিজিটাল মার্কেটিং

গালীব বিন মোহাম্মদের মতে ডিজিটাল মার্কেটিং-কে আলাদাভাবে দেখার কিছু নেই। এটি ট্র্যাডিশনাল মার্কেটিং-এর অংশ। মার্কেটিং-এর কাজ হলো মানুষের কাছাকাছি যাওয়া তাই যে মাধ্যমে মানুষ আছে, মার্কেটিং সেখানে পৌঁছে যাচ্ছে। প্রত্যেকটা মাধ্যমে মানুষের একেক রকম বিহেভিয়ার থাকে। সে বিহেভিয়ার অনুযায়ী মার্কেটিংকে কাস্টমাইজড করতে হয়। একসময় শুধুমাত্র টেলিভিশন ও পত্রিকাকে মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করা হতো। এখন অনলাইন প্ল্যাটফর্মেও মানুষের ব্যাপক উপস্থিতি তাই সেখানেও মানুষের বিভেহিয়ার বুঝে মার্কেটিং করা হয়। টেলিভিশনে যে বিজ্ঞাপন এক মিনিটের মত সময় ধরে দেখানো হয়, অনলাইনে হয়তো সেটি পাঁচ-দশ সেকেন্ড দেখানো হচ্ছে। মার্কেটিং-এর বেসিক ব্যাপারগুলো একই আছে। ভবিষ্যতে নতুন নতুন মাধ্যম এলে মার্কেটিং সেখানেও কাজ করবে।

মার্কেটিং-এ সবার সুযোগ

নারী ও পুরুষ উভয়ের জন্য মার্কেটিং-এ কাজ করার সমান সুযোগ রয়েছে। এখানে কাউকে ছোট-বড় করে দেখার কোনো সুযোগ নেই। আপনি এই কাজে দক্ষ কিনা এটাই বিবেচ্য বিষয়।

ইন্টার্ভিউ বোর্ডে যাবার আগে

গালীব বিন মোহাম্মদ বলেন, মার্কেটিং-এ জবের ক্ষেত্রে ভালো রেজাল্টের প্রয়োজন আছে আবার নাই দুটোই সত্য। ভালো রেজাল্ট আপনাকে ইন্টার্ভিউ বোর্ড পর্যন্ত আসার ক্ষেত্রে সহযোগিতা করবে। কিন্তু ইন্টার্ভিউ বোর্ডে আপনাকে অবশ্যই ভালোভাবে উপস্থাপন করতে হবে। ইন্টার্ভিউ ফেস করার জন্য ভালোভাবে প্রস্তুতি নিতে হবে। যে কোম্পানিতে ইন্টার্ভিউ দিচ্ছেন সে কোম্পানি সম্পর্কে ভালোভাবে জানতে হবে। আপনি যে পোষ্টের জন্য আবেদন করছেন সে পোষ্টে কাজ করছে এমন কারো সাথে যোগাযোগ করে সে পোষ্টের দায়িত্বগুলো সম্পর্কে জেনে রাখতে পারেন। সিভিতে যা লিখেছেন সে তা ভালোভাবে ব্যাখা করা জানতে হবে। মনে রাখতে হবে ইন্টার্ভিউ বোর্ড মানে ঘুম থেকে উঠে পরিস্কার জামা পরে চলে যাওয়া না। এখানে পূর্ব প্রস্তুতির বিষয় রয়েছে।

বই কেন পড়বেন

মার্কেটিং-এ কাজ করতে হলে মানুষের বিহেভিয়ার বুঝা অত্যন্ত জরুরি। মানুষ আজকে যে আচরণ করছে তার পিছনে নিশ্চই অতীতের কোনো ঘটনা কাজ করছে। মানুষের বিহেভিয়ার অ্যানালাইসিস করার জন্য ইতিহাস নিয়ে পড়াশোনা করতে হবে। বই পড়ার ক্ষেত্রে সব বিষয়কে গুরুত্ব দিতে হবে। যখন যে বিষয় হাতের সামনে পাওয়া যায় সে বিষয় নিয়ে পড়াশোনা করতে হবে। মার্কেটিং-এ কাজ করার জন্য পড়াশোনার বিকল্প নেই। গালীব বিন মোহাম্মদ বলেন, আপনার যদি পড়াশোনার অভ্যাস না থাকলে তাহলে মার্কেটিং জগতটা আপনার জন্য নয়। কারণ আপনি যদি পড়াশোনা না করেন তাহলে আপনি মানুষকে বুঝতে পারবেন না।

পছন্দের বই

গালীব বিন মোহাম্মদ বলেন, আমি বই পড়তে খুব পছন্দ করি। সব ধরনের বই আমার ভালো লাগে। তিনি তার পছন্দের যে কয়েকটি বইয়ের নাম বলেছেন,

গালীব বিন মোহাম্মদ বলেন, আপনার যা ভালো লাগে আপনি তাই করবেন। নিজেকে আবিষ্কার করুন আপনি কোন ধরনের কাজ করতে পছন্দ করেন। সে অনুযায়ী নিজের ক্যারিয়ার গড়ুন। তাহলে সফলতা আসবে।

মার্কেটিং এর সেরা ১০ বই দেখুন

rokomari

rokomari

Published 29 Jan 2018
Rokomari.com is now one of the leading e-commerce organizations in Bangladesh. It is indeed the biggest online bookshop or bookstore in Bangladesh that helps you save time and money.
  0      0
 

comments (0)

Leave a Comment

You May Also Like This Article

Rokomari-blog-Logo.png